জটিল মানসিক রোগ সিজোফ্রেনিয়া।

মানসিক স্বাস্থ্য রোগব্যাধি স্বাস্থ্য টিপস

এ রোগের লক্ষণ হচ্ছে– চিন্তাধারা এবং অনুভূতি প্রকাশের মধ্যে সঙ্গতি না থাকা।

পরিবারের কেউ বা পরিচিতজনরা তার খাবারে বিষ মিশিয়ে দিচ্ছে– এমন অমুলক সন্দেহ করে থাকেন এই রোগীরা। এ ছাড়া আরও অমূলক সন্দেহ করে থাকেন তারা।

সিজোফ্রেনিয়া রোগের কারণ : এই রোগের সঠিক কারণ জানা যায়নি। তবে, যে যে কারণগুলিকে এই রোগের জন্য দায়ী করা হয়, সেগুলি হল- জেনেটিক বা বংশগতভাবে এই রোগ থাকলে পরবর্তী প্রজন্মের মধ্যেও তা দেখা যায়। বাবা, মা-এর কারো এই রোগ থাকলে সন্তানেরও হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। চিকিৎসকরা বলছেন জেনেটিক ইনফ্লুয়েন্স থাকে ৮০ শতাংশ।

সিজোফ্রেনিয়া রোগের লক্ষণ:

* একা একা কথা বলা।

* চুপচাপ থাকা।

* কারও কথার জবাব না দেওয়া।

* কোনো কিছু জিজ্ঞাসা করলে উত্তর না দেওয়া।

* কানে অলিক কথা শোনা।

* অসংলগ্ন কথা বলা।

* প্রতিদিনের কাজ সঠিকভাবে না করা।

* ভ্রান্ত বিশ্বাস।

* অহেতুক সন্দেহপ্রবণতা (ডিল্যুশন), অবাস্তব চিন্তাভাবনা, অসংলগ্ন কথাবার্তা।

সিজোফ্রেনিয়া প্রতিরোধের উপায়: মনে রাখতে হবে, এই রোগের প্রাথমিক লক্ষণ গুলি দেখা দিলেই চিকিৎসক বা বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেওয়া একান্ত প্রয়োজন।

* এই চিকিৎসার সাধারণত যে ওষুধ প্রয়োগ করা হয় তা হলো অ্যান্টিসাইকোটিক ড্রাগ। হ্যালুসিনেশন, ডিলিউশন এবং সাইকোসিসের লক্ষণ গুলি প্রশমিত করতে ওষুধের ব্যবহার করা হয়।

* এর পাশাপাশি সিজোফ্রেনিয়ার উপসর্গ বিভিন্ন থেরাপি ও মনোচিকিৎসাও গুরুত্বপূর্ণ। বিভিন্ন মানসিক চিকিৎসার পাশাপাশি রোগীর সামাজিক সহায়তাও ভীষণ ভাবে প্রয়োজন হয়।

* সাইকোলজিক্যাল ইন্টারভেনশন থেরাপি-র মাধ্যমে রোগী স্ট্রেস এবং অন্যান্য মানসিক অসুস্থতা থেকে মুক্তি লাভ করে।

* ভোকেশনাল রিহ্যাবিলিটেশন এর মাধ্যমে রোগীকে কাজে ফেরার জন্য প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়৷ এছাড়াও, রোগীকে অ্যানেস্থেসিয়া করে মাথায় ইলেকট্রোড লাগানো হয় এবং তারপর ছোটো কারেন্টের শক দেওয়া হয়। এতে রোগীর মানসিক অবস্থা এবং চিন্তাশক্তির উন্নতি হয়।

তথ্যসূত্রঃ

১। https://l.facebook.com/l.php?u=https%3A%2F%2Fwww.jugantor.com%2Flifestyle%2F387214%2F%25E0%25A6%25B8%25E0%25A6%25BF%25E0%25A6%259C%25E0%25A7%258B%25E0%25A6%25AB%25E0%25A7%258D%25E0%25A6%25B0%25E0%25A7%2587%25E0%25A6%25A8%25E0%25A6%25BF%25E0%25A7%259F%25E0%25A6%25BE-%25E0%25A6%25B0%25E0%25A7%258B%25E0%25A6%2597%25E0%25A7%2580-%25E0%25A6%259A%25E0%25A6%25BF%25E0%25A6%25A8%25E0%25A6%25AC%25E0%25A7%2587%25E0%25A6%25A8-%25E0%25A6%2595%25E0%25A7%2580%25E0%25A6%25AD%25E0%25A6%25BE%25E0%25A6%25AC%25E0%25A7%2587-%25E0%25A6%259A%25E0%25A6%25BF%25E0%25A6%2595%25E0%25A6%25BF%25E0%25A7%258E%25E0%25A6%25B8%25E0%25A6%25BE%3Ffbclid%3DIwAR1TrZusMGwWUhPpnL0JokPB5USYqdIqvHJufKbUZKti_iNPKTUrMgwH2yo%23%3A~%3Atext%3D%25E0%25A6%25B8%25E0%25A6%25BF%25E0%25A6%259C%25E0%25A7%258B%25E0%25A6%25AB%25E0%25A7%258D%25E0%25A6%25B0%25E0%25A7%2587%25E0%25A6%25A8%25E0%25A6%25BF%25E0%25A6%25AF%25E0%25A6%25BC%25E0%25A6%25BE%2520%25E0%25A6%258F%25E0%25A6%2595%25E0%25A6%259F%25E0%25A6%25BF%2520%25E0%25A6%259C%25E0%25A6%259F%25E0%25A6%25BF%25E0%25A6%25B2%2520%25E0%25A6%25AE%25E0%25A6%25BE%25E0%25A6%25A8%25E0%25A6%25B8%25E0%25A6%25BF%25E0%25A6%2595%2520%25E0%25A6%25B0%25E0%25A7%258B%25E0%25A6%2597%2C%25E0%25A6%2585%25E0%25A6%25AE%25E0%25A7%2582%25E0%25A6%25B2%25E0%25A6%2595%2520%25E0%25A6%25B8%25E0%25A6%25A8%25E0%25A7%258D%25E0%25A6%25A6%25E0%25A7%2587%25E0%25A6%25B9%2520%25E0%25A6%2595%25E0%25A6%25B0%25E0%25A7%2587%2520%25E0%25A6%25A5%25E0%25A6%25BE%25E0%25A6%2595%25E0%25A7%2587%25E0%25A6%25A8%2520%25E0%25A6%25A4%25E0%25A6%25BE%25E0%25A6%25B0%25E0%25A6%25BE%25E0%25A5%25A4&h=AT35aXjrGAHYWzR4ToPHHv17X1a-IMO-0xXHMpQwxyCCqwZ7tUmXQxiT8Clb1AaPmIAa4SkdG5W3bOL0zbOlxWiAtgfbCRlRfdzvx43JFNw5mn65VCJvKAXJEE2Fjrr8-obA9w

২। https://l.facebook.com/l.php?u=https%3A%2F%2Fbengali.boldsky.com%2Fhealth%2Fschizophrenia-causes-symptoms-and-treatment-004588.html%3Ffbclid%3DIwAR0GSIT3m4PG4c6Qq85RbMxS3urRl0sZttdxTpjDOmOSSc_sPCAu9FD0T_0&h=AT35aXjrGAHYWzR4ToPHHv17X1a-IMO-0xXHMpQwxyCCqwZ7tUmXQxiT8Clb1AaPmIAa4SkdG5W3bOL0zbOlxWiAtgfbCRlRfdzvx43JFNw5mn65VCJvKAXJEE2Fjrr8-obA9w

সম্পাদনায়: স্বর্ণা হক ৩য় বর্ষ,২য় সেমিস্টার ফার্মেসি বিভাগ, মাভাবিপ্রবি।

1 thought on “জটিল মানসিক রোগ সিজোফ্রেনিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published.