ডেঙ্গু জ্বরে হার্টের রোগীদের করণীয়,আমরা সবাই সচেতন হই আতঙ্কিত না হয়ে!

প্রাথমিক চিকিৎসা বিবিধ রোগব্যাধি স্বাস্থ্য টিপস

ডেঙ্গু জ্বরে অনেক মানুষ মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ছে। যা অত্যন্ত স্পর্শকাতর এবংউদ্বেগজনক। ডেঙ্গু ভাইরাস কেবলমাত্র এডিস মশার মাধ্যমে ছড়ায়। আমরাএর জীবনচক্র পরিষ্কার করে জানি। একটি ক্ষুদ্র গন্ডির ভেতর এর চলাফেরা। অতএব এর জীবনচক্র রুখে দেয়া বা ভেঙ্গে দেয়া মোটেই কঠিন না। এডিস মশা পরিষ্কার পানিতে জন্মলাভ এবং বংশবিস্তার করে। সাধারণত অভিজাত এলাকায় পরিচ্ছন্ন পরিবেশ এদের পছন্দ।

ব্যথানাশক কেন দেওয়া যাবে নাঃ

ডেঙ্গু জ্বরে রক্তের জমাটবাধার প্রধান উপাদান অনুচক্রিকা কমে যেতে পারে। অনুচক্রিকা দেহের স্বাভাবিক রক্তপ্রবাহে একটি নিখুঁত ভারসাম্য রক্ষা করে। ডেঙ্গু জ্বরে সেই ভারসাম্যটি ভেঙ্গে পড়তে পারে। প্রায় সবধরণের ব্যথানাশক ওষুধ এই অনুচক্রিকার বিরুদ্ধে কাজ করে। ফলে মরার উপর খরার ঘা এর মত কমতে থাকা অনুচক্রিকা ব্যথানাশকের আক্রমণে দ্রুত অকার্যকর হয়ে রোগীকে রক্তক্ষরণের ঝুঁকিতে ফেলে দিতে পারে ।

হাসপাতালে কখন ভর্তি হবেনঃ

ডেঙ্গু রোগ ধরা পড়ার পর থেকে প্রতিদিন রক্তের সিবিসি পরীক্ষা করতে হবে। যদি দেখা যায় অনুচক্রিকা স্থিতিশীল রয়েছে, রোগী মুখে পর্যাপ্ত খেতে পারছেন তাহলে দুশ্চিন্তার কিছু নেই, বাড়িতে বসেই চিকিৎসা নিতে পারবেন। যদি অনুচক্রিকা দ্রুত হ্রাস পেতে থাকে এবং রোগীর রক্তচাপ কমতে থাকে, নাড়ির গতি বাড়তে থাকে, মুখে পর্যাপ্ত খেতে পারেন না তাহলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হবে।

আর যদি দেখা যায় অনুচক্রিকা ধীরগতিতে কমছে তাহলে বাড়িতে বসে প্রতিদিন সিবিসি করতে হবে।অনুচক্রিকা একবার বাড়তে শুরু করলে আর ভয় নেই। ধীরে ধীরে রোগী ভাল হয়ে যাবেন।

হৃদরোগীরা কী করবেনঃ

যারা হৃদরোগে আক্রান্ত তাদেরকে অনির্দিষ্টকালের জন্য রক্ত পাতলা করার ঔষুধ (যেমন অ্যাসপিরিন, ইকোস্প্রিন, কারভা, ইরাসপ্রিন, ডিসপ্রিন, ক্লপিড, লোপিরেল, ওড্রেল, প্লেডেক্স, ক্লোনটাস, ক্লগনিল, অ্যানক্লগ, রিপ্লেট, প্লাভিক্স, ক্লোরেল, প্রাসুরেল, ইত্যাদি ) খেতে হয়। এই ঔষুধগুলো রক্তের অনুচক্রিকার বিরুদ্ধে কাজ করে এদেরকার্যক্ষমতাকে হ্রাস করে দেয়।হৃদরোগীদের জন্য এটি দরকার হয় রক্তনালীর ভেতর অনাকাঙ্খিত রক্ত যাতে জমাটবাঁধতে না পারে। কিন্তু ডেঙ্গু জ্বরের ক্ষেত্রে ইতিমধ্যে কমতে থাকা অনুচক্রিকা যেখানে রক্তক্ষরণের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয় সেখানে এই জাতীয় পাতলা করার ঔষুধ রক্তক্ষরণের সম্ভাবনাকে অনেকগুন বৃদ্ধি করে। সুতরাং হৃদরোগীরা ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হবার সাথে সাথে রক্তপাতলা করার সব ঔষুধ সাথে সাথে সাময়িকভাবে বন্ধ করে দিতে হবে। ডাক্তারের সাথে ঘনিষ্ট যোগাযোগ রেখে তার নির্দেশমত চলতে হবে এবং যখনই অনুচক্রিকা স্বাভাবিক পর্যায়ে ফিরে আসবে তখন ডাক্তার সবদিক বিবেচনা করে পুনরায় রক্ত পাতলা করার ঔষুধ ( অ্যাসপিরিন, ক্লোপিডোগ্রেল, প্রসুগ্রেল ইত্যাদি) শুরু করার পরামর্শ দিবেন।

এছাড়া প্রায়শই দেখা যায় যে, হৃদরোগীদের অনেকের হৃদরোগ ছাড়াও উচ্চ রক্তচাপ, হার্ট ফেইল্যুর এর ওদঔষুধ খেতে হয়।এসব ঔষুধ রক্তচাপকে আরো কমিয়ে দিতে পারে।তাই এসব ঔষুধ ডাক্তারের সাথে পরামর্শক্রমে সাময়িক বন্ধ রাখতে হবে। ডেঙ্গু রোগে অনেকক্ষেত্রে লিভার আক্রান্ত হয়। এসজিপিটি,বিলিরুবিন বেড়ে যেতে পারে।

তাই যারা কোলেস্টেরল কমাবার ঔষুধ খান তাদেরকে সাময়িকভাবে এসব ঔষুধ বন্ধ রাখতে হবে।যাদের ডায়াবেটিস আছে ডেঙ্গু রোগে তাদের রক্তের সুগার উঠানামা করতে পারে।তাই ডায়াবেটিসের ঔষুধ /ইনসুলিন নেবার আগে ঘন ঘন রক্তের সুগার পরীক্ষা করে ডোজ এ্যাডজাস্ট করে নিতে হবে।

কতদিনে সুস্থ হবেনঃ

যত ব্যপকতা নিয়েই ডেঙ্গু আমাদের আক্রমণ করুক না কেন বিপুল অধিকাংশ ক্ষেত্রে এটি নিরাময়যোগ্য রোগ।রক্তের অনুচক্রিকার কাউন্ট একবার বাড়া শুরু করলে আর ভয় নেই।প্রাধান চিকিৎসা হল সাপোর্টিভ ও নার্সিং।পর্যাপ্ত বিশ্রাম ও খাদ্য গ্রহণ করলে এক দুই সপ্তাহের মধ্যে রোগী কাজে যোগদান করতে পারবেন।অনেক রোগের মত যেহেতু ডেঙ্গু রোগের কার্যকর টীকা এখন পর্যন্ত আবিষ্কার হয়নি তাই প্রতিরোধই মূল ফোকাস হতে হবে।সেটি যে কিভাবে সম্ভব তা প্রথমেই বলেছি।যাদেরকে  হৃদরোগের বিভিন্ন ঔষুধ বন্ধ রাখতে হয়েছে তাদেরকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ডাক্তার দেখিয়ে পূর্বের ঔষুধগুলো পুনরায় শুরু করতে হবে।
ভালো থাকুক সবার সব আপনজন।

রেফারেন্সঃ
1.https://www.who.int/news-room/fact-sheets/detail/dengue-and-severe-dengue
2.https://ijmrr.medresearch.in/index.php/ijmrr/article/view/1235/2229
3.https://www.bbc.com/bengali/nehws-49179974
4.https://www.prothomalo.com/life/health/%E0%A6%A1%E0%A7%87%E0%A6%99%E
0%A7%8D%
E0%A6%97%E0%A7%81-%E0%A6%B9%E0%A6%B2%E0%A7%87-
%E0%A6%95%E0%A7%80
-%E0%A6%96%E0%A6%BE%E0%A6%AC%E0%A7%87%E0%A6%A8
5.https://www.thehindu.com/news/national/other-states/%E2%80%98Dengue-
dangerous-for- heart-patients%E2%80%99/article14588814.ece
6.https://timesofindia.indiatimes.com/home/science/dengue-in-heart-patients-could-
aggravate- cardiac-problems-study/articleshow/53831496.cms

লিখেছেন:

চঞ্চল মাহমুদ 

Department of Computer science and Engineering discipline (Fourth year), Khulna University

Leave a Reply

Your email address will not be published.